ইস’লাম গ্রহণ করলেন একই পরিবারের ছয়জন

গাজীপুরের কাপাসিয়ায় হিন্দু সম্প্রদায়ের একই পরিবারের ছয়জন ইস’লাম ধ’র্ম গ্রহণ করেছেন।

গতকাল শুক্রবার জুমা’র নামাজের পর উপজে’লার সিংহশ্রী ইউনিয়নের কুলগঙ্গা গ্রামের ওই ছয়জন আনুষ্ঠানিকভাবে ইস’লাম ধ’র্ম গ্রহণ করেন।

এরা হলেন- উপজে’লার সিংহশ্রী ইউনিয়নের কুলগঙ্গা গ্রামের অনিল চন্দ্র দাস (৭০), তার স্ত্রী'’ শ্রীমতি রুনুবালা দাস (৬৫), ছেলে ঝন্টু দাস (৪০), ঝন্টু দাসের স্ত্রী'’ শ্রীমতি লতা রানী দাস (৩৫), তাদের ছেলে জয়ন্ত দাস (১০) ও সৌরভ দাস (৭)।

ইস’লাম গ্রহণের পর অনিল চন্দ্র দাসের নতুন নাম রাখা হয় মো. আতিকুল্লাহ, রুনুবালা দাসের নাম মোছা. রাবেয়া খাতুন, শ্রী ঝন্টু দাসের নাম মো. জাহাঙ্গীর আলম জসিম, লতা রানী দাসের নাম আয়শা খাতুন, শ্রী জয়ন্ত দাসের নাম মো. জাবের আহমেদ ও শ্রী সৌরভ দাসের নাম মো. আসাদ উল্লাহ রাখা হয়।

সিংহশ্রী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আশ্রাফ উদ্দিন খান আল আমিন জানান, শুক্রবার জুমা’র নামাজের সময় কুলগঙ্গা ম’সজিদে এসে শত শত মু’সল্লির সামনে প্রথমে ওই পরিবারের তিন সদস্য ঝন্টু দাস, জয়ন্ত দাস ও সৌরভ দাস স্বেচ্ছায় ইস’লাম গ্রহণ করেন। ম’সজিদের ই’মাম নুর মোহাম্ম’দ ও মাওলানা আব্দুর রহিম কালেমা পড়িয়ে তাদের ইস’লাম ধ’র্ম গ্রহণ করান এবং পূর্বের নাম পরিবর্তন করে নতুন ইস’লামি রাখেন।

পরে নওমু’সলিম’রা খুতবা শুনেন এবং জুমা’র নামাজ আদায় করেন। জুমা’র নামাজ শেষে ঝন্টু দাস (নতুন নাম মো. জাহাঙ্গীর আলম জসিম) ম’সজিদের ই’মামকে সঙ্গে নিয়ে তাদের বাড়িতে গিয়ে মা-বাবা ও স্ত্রী'’সহ স্বপরিবারে ইস’লাম ধ’র্ম গ্রহণ করেন।

এ বিষয়ে নওমু’সলিম মো. জাহাঙ্গীর আলম জসিম ও তার বাবা আতিকুল্লাহ বলেন, আম’রা স্বেচ্ছায় শান্তির ধ’র্ম ইস’লাম গ্রহণ করেছি। আমাদেরকে কেউ চাপ দিয়ে ধ’র্মান্তরিত করেনি।