ভারতকে চ্যালেঞ্জিং টার্গেট দিল টাইগাররা

রাজকোটে জিতলেই ঐতিহাসিক সিরিজ নিশ্চিত করবে বাংলাদেশ।

এমন সমীকরণের ম্যাচে টস ভাগ্য ছিলো বাংলাদেশের বিপক্ষে।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভার খেলে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৫৩ রান করে টাইগাররা।

তাই সিরিজ সমতায় ফিরতে হলে ভারতকে করতে হবে ১৫৪ রান। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দারুণ করে দুই ওপেনার লিটন দাস ও নাঈম শেখ। তবে ব্যক্তিগত ১৭ রানে প্যাভিলিয়নে ফিরে যেতে পারতেন লিটন কিন্তু ভারতের উইকেট'কিপারের ভুলে বেঁচে যান তিনি।

সুযোগ পেয়েও ব্যর্থ ছিল এই ব্যাটসম্যান। দলীয় ৬০ রানে চাহালকে ঠিকমতো খেলতে পারেননি লিটন। উইকেট'কিপারে রিষভ পন্ত সামনে দৌড়ে দ্রুত বল ধরে সরাসরি থ্রোয়ে ভাঙেন স্টাম্প। প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে এই ব্যাটসম্যান করেন ২১ বলে ২৯ রান।

এরপর দ্রুতই সাজঘরে ফিরে যায় তরুণ ওপেনার নাঈম শেখ। ওয়াশিংটন সুন্দরের বলে স্লগ সুইপ খেলেছিলেন তিনি। কিন্তু শটে জো'র ছিল না তেমন। মিড উইকেট সহ'জ ক্যাচ নেন শ্রেয়াস আইয়ার। আউট হওয়ার আগে নাঈম করেন ৩১ বলে ৩৬ রান। যখন দুই উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পরে বাংলাদেশ তখন টাইগার শিবিরের চাপ আরো বাড়িয়ে দেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল মুশফিকুর রহিম ও সৌম্য সরকার।

গত ম্যাচের জয়ের নায়ক মুশফিক ছিলো আজ ব্যর্থ। মুশফিকের দেখানো পথেই হেঁটে যান সৌম্য সরকার। যুজবেন্দ্র চাহালের একই ওভারে আউট হয়েছেন মুশফিকুর রহিম ও সৌম্য সরকার।

প্রথম বলে সুইপ করতে গিয়ে ডিপ মিড উইকে'টে সহ'জ ক্যাচ দেন ৪ রান করা মুশফিক। শেষ বলে বেরিয়ে এসে খেলতে গিয়ে স্টাম্পড হন সৌম্য সরকার। ২০ বলে সৌম্য করেন ৩০। আর আফিফ আউট হয় ৮ বলে ৬ রান করে। শেষের দিকে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের ব্যাটিং নৈপুণ্যে শেষ আশা টিকে থাকলো বাংলাদেশের।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:-

বাংলাদেশ: ১৫৩/৬ (২০ ওভার)

বাংলাদেশ একাদশ: লিটন কুমা'র দাস, সৌম্য সরকার, মোহাম্ম'দ নাঈম শেখ, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, আমিনুল ইস'লাম বিপ্লব, শফিউল ইস'লাম, মু'স্তাফিজুর রহমান ও আল-আমিন হোসেন।

ভারত একাদশ: রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, লোকেশ রাহুল, শ্রেয়াস আইয়ার, রিষভ পন্ত, ক্রনাল পান্ডিয়া, শিভাম দুবে, ওয়াসিংটন সুন্দর, দীপক চাহার, যুজবেন্দ্র চাহাল ও খলিল আহমেদ।