এক স্ত্রী'কে নিয়ে দুই স্বামীর টানাটানি

এক নারী বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ ছিলেন প্রায় ১৫ বছর। এরপর পর'কিয়ায় জড়িয়ে প্রথমজনকে তালাক দিয়ে বিয়ে করেন পর'কী'য়া প্রেমিককে।

কিন্তু এখানেও তিনি দীর্ঘদিন সংসার করেন নি। তবে এবার দ্বিতীয় স্বামীকে তালাক না দিয়েই আবার সংসার করতে ফিরে গেছেন প্রথম স্বামীর কাছে।

মানিকগঞ্জের সাঁটুরিয়া থানায় কা'ণ্ডটি ঘটিয়েছেন নীলুফা ইয়াসমিন নামের এই নারী। তার প্রথম স্বামীর নাম মফিজুল ইস'লাম, দ্বিতীয় স্বামীর নাম শহিদুল ইস'লাম। এ বিষয়ে নিলুফারের দ্বিতীয় স্বামী মো: শহিদুল ইস'লাম জানান, আমা'র বিয়ে করা স্ত্রী' আমাকে তালাক না দিয়েই আমা'র নামে মিথ্যা মা'মলা দিয়ে অন্য পুরুষের ঘর করছে।

জানা যায়, পর'কী'য়া স'ম্পর্কের কারণে গত বছরের ১৭ই মা'র্চ তারিখে নিলুফা ইয়াসমীন প্রথম স্বামী মফিজুল ইস'লামকে তালাক দিয়ে ওই বছরের ১১ জুলাই শহিদুল ইস'লামকে কাজী অফিসে রেজিস্টার করে বিয়ে করেন। দীর্ঘ এক বছর দ্বিতীয় স্বামী শহিদুলের ঘর সংসার করার পর একপর্যায়ে তাকে (শহিদুলকে) তালাক না দিয়ে পুনরায় প্রথম স্বামী মফিজুল ইস'লামের ঘর সংসার করছে বলে অ'ভিযোগ ওঠে। বর্তমানে অ'ভিযুক্ত নারী নিলুফা ইয়াসমীন তার প্রথম স্বামীর সাথে সংসার করছেন।

মানিকগঞ্জ জে'লা জজ কোর্টের আইনজীবী অ্যাড. জাহিদুর রহমান তালুকদার বাবু জানান, ইস'লামী শরিয়াহ এবং দেশীয় মু'সলিম পারিবারিক আইন অনুযায়ী একসাথে একজন নারীর একাধিক স্বামী অনুমোদন করে না। প্রথম স্বামী মফিজুল ইস'লামের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তাকে পাওয়া যায়নি।