বিয়ের খবর জানাতে বাধ্য হলেন ত`রুণী

বিয়ের পরের দিন নিজেদের বিয়ে নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে এক নবদম্পতি।

মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) চাঁপাইনবাবগঞ্জের একটি রেস্টুরেন্টে স্বামী সোহাগকে নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে আনিকা ইস'লাম পিংকি লিখিত বক্তব্যে নিজেকে সাবালিকা দাবি করে স্বেচ্ছায় বিয়ে করেছেন বলে জানান।

এর দুই দিন আগে (১১ জানুয়ারি) কনের বাবা রাজশাহী কলেজ থেকে তার মেয়ে নি'খোঁজ হয়েছে এ ম'র্মে রাজশাহী বোয়ালিয়া থানায় অ'ভিযোগ করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে আনিকা ইস'লাম পিংকি বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের কাজী মোস্তফা কামালের কাছে তারা বিয়ের নিবন্ধন করেছেন।

তিনি বর্তমানে অনার্স তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। তার বাড়ি রাজশাহী মহানগরের বোয়ালিয়া এলাকায়। আমি স্বেচ্ছায় স্বজ্ঞানে আমা'র সোহাগকে বিয়ে করেছি।

পরিবাবের লোকজন মিথ্যা মা'মলা দিয়ে শ্বশুরবাড়ির লোকজনকে হয়'রানি করতে পারে বলে আশ'ঙ্কা তার।

বিয়ে নিবন্ধনকারী কাজী মোস্তফা কামালের কাছে এ বিয়ের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সকল আইনগত দিক মেনেই ১৩ জানুয়ারি তাদের বিয়ে নিবন্ধন করা হয়েছে। বিয়ের নিবন্ধন নম্বর ১৫/২০২০।

এ বিষয়ে আনিকা ইস'লাম পিংকির বাবা আশরাফুল ইস'লামের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, তার মেয়ে গত ১১ জানুয়ারি কলেজে ক্লাস করতে গিয়ে আর ফিরে না আসায়, আত্মীয় স্বজনসহ সবখানে খোঁজাখুঁজির পর বোয়ালিয়া থানা পু'লিশকে জানান।

তবে আনিকা ইস'লাম পিংকির স্বামী মো. সোহাগের মায়ের সঙ্গে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।