বিপিএল সেরা হওয়ার দৌড়ে ৫ টাইগার, ঘাড়ে নিঃশ্বা'স ফেলছে সৌম্য

পর্দা নামছে ২০১৯-২০ বঙ্গবন্ধু বিপিএলের ৭ম আসরের। ইতিমধ্যেই চলতি বিপিএলের প্রথম দল হিসেবে ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে খুলনা টাইগার্স।

প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচে রাজশাহী রয়্যালসকে ২৭ রানে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে তারা।

অন্যদিকে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে বুধবার চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের মুখোমুখি হবে রাজশাহী রয়্যালস। বাঁ'চা-ম'রার এই ল'ড়াইয়ে জয়ী দলে সরাসরি জায়গা করে নিবে ফাইনালে।

ফাইনালের ল'ড়াইয়ের আগেই চলতি বিপিএলের সেরা খেলোয়ার কে হচ্ছেন তা নিয়ে ব্যাপক কানাঘোষা শুরু হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু বিপিএলের এবারের আসরের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ব্যাটসম্যান মুশফিক। ১৩ ম্যাচে ৭৮ গড়ে ৪৭০ রান নিয়ে সবার উপরে আছেন এই টাইগার ব্যাটসম্যান। তার দায়িত্ব নির্ভরশীল ব্যাটিং ও অধিনায়কত্বে ভর করেই খুলনা ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে সবার আগে। তাই বিপিএলে সেরা হওয়ার দৌড়ে সবচেয়ে এগিয়ে আছেন এই টাইগার সাবেক অধিনায়ক।

মুশফিকের পরেই বিপিএল সেরা হওয়ার দাবিদার ইম'রুল কায়েস। দূর্দান্ত এক বিপিএল কাটিয়েছেন চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের ভারপ্রাপ্ত এই অধিনায়ক। মাহমুদউল্লাহর অনুপস্থিতিতে দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। ১২ ম্যাচে ৪ ফিফটিতে ৪৩৭ রান করে এই টাইগার ওপেনারও আছেন বিপিএল সেরা হওয়ার ল'ড়াইয়ে।

বিপিএলটা খুব খা'রাপ যায়নি আরেক টাইগার ওপেনার লিটন দাসেরও। রাজশাহী কিংসের দলীয় সফলতায় তার অবদানও কম ছিল না। ১৩ ম্যাচে ৪২৪ রান নিয়ে ইম'রুল-মুশফিকের পরেই আছে লিটনের নাম।

তবে এখানেই সব শেষ নয়! টি-টোয়েন্টি ক্রিকে'টের এই যুগে ২০ ওভারের টুর্নামেন্টগুলোতে আসর সেরা ক্রিকেটার নির্বাচনের ক্ষেত্রে অলরাউন্ডারদেরই বেশি প্রাধান্য দেওয়া হয়।

বিপিএলের গত কয়েক আসরেও টুর্নামেন্ট সেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত হয়েছেন সাকিব আল হাসান, আসহার জাইদী, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, ক্রিস গেইলদের মতো ব্যাটিং অলরাউন্ডার ক্রিকেটাররা। এর মধ্যে সাকিব আল হাসান তিনবার টুর্নামেন্ট সেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত হয়েছেন।

এসব কারণেই এবারের বিপিএল সেরা ক্রিকেটার হওয়ার দৌড়ে মুশফিক-ইম'রুলের ঘাড়ে নিঃশ্বা'স ফেলছেন সৌম্য সরকার! অনেকটা অন্ধকারে থেকেই যেনো এবারের বিপিএলে পারফরম্যান্স উপহার দিয়েছেন এই ক্রিকেটার।

দল সেমিফাইনালের আগেই বাদ পড়ে যাওয়ায় সৌম্যর পারফরম্যান্স নিয়েও তেমন আলোচনা হয়নি। তবে ব্যাটিং অলরাউন্ডার সৌম্য এবারের বিপিএলে কুমিল্লার হয়ে বল হাতে বেশি আলো ছড়িয়েছেন।

চলতি বিপিএলে ১২ ম্যাচে ৩৩ গড়ে দুই ফিফটি ও ১৪০ ব্যাটিং স্ট্রাইক রেটে ৩৩১ রান করেছেন সৌম্য সরকার। ইম'রুল-মুশফিকের মতো নামের পাশে ৪০০ রান না হলেও সৌম্য এগিয়ে আছেন বোলিংয়ে। কুমিল্লার হয়ে বল হাতে ১২টি উইকেট শিকার করেছেন তিনি।

সৌম্যর পরেই অলরাউন্ডার হিসেবে খা'রাপ করেননি রাজশাহী রয়্যালসের আরেক তরুণ তুর্কি আফিফ হোসেনও। চলতি বিপিএলে ১৩ ম্যাচে নামের পাশে ৩৫৮ রানের পাশাপাশি ৬ উইকেটও আছে আফিফের ঝুলিতে।

সব মিলিয়ে বিপিএল সেরা ক্রিকেটার হওয়ার দৌড়ের ল'ড়াইটা এককভাবেই আধিপত্য রেখেছে বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা। মুশফিক-ইম'রুলরা এগিয়ে থাকলেও খুব একটা পিছিয়ে নেই সৌম্য সরকারও। তাই কে হচ্ছেন এবারের বিপিএলের টুর্নামেন্ট সেরা ক্রিকেটার সেই খবর জানতে এখনও অ'পেক্ষা করতে হবে আরও দুইটি ম্যাচ।