বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের স্বার্থপর বললেন ব্যাটিং কোচ ম্যাকেঞ্জি

জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা পরবর্তী ম্যাচে খেলতে পারলেই খুশি থাকেন বলে মন্তব্য করেছেন ব্যাটিং কোচ নীল ম্যাকেঞ্জি।

আজ রোববার বিসিবি একাডেমি মাঠে মুমিনুলদের নিয়ে অনুশীলন শেষে এ কথা বলেন তিনি।

পাকিস্তানের বি`পহ্মেটি-টোয়েন্টি সিরিজে প্রথম দুই ম্যাচে হেরে সিরিজ খুইয়েছে টাইগাররা। দুই ম্যাচেই বাজে ব্যাটিং করেছেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা।

টাইগাররা প্রথম ম্যাচে পাঁচ উইকেট হারের পর দ্বিতীয় ম্যাচে হারে নয় উইকে'টে।

টি-টোয়েন্টি দল পাকিস্তানে থাকলেও টেস্ট দল নিয়ে বিসিবি একাডেমি মাঠে অনুশীলন শুরু করে দিয়েছেন নীল ম্যাকেঞ্জি।

পাকিস্তানে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতা নিয়ে কথা বলতে গিয়ে টাইগারদের ব্যাটিং কোচ বলেন, ‘কোনো সন্দেহ নেই বাংলাদেশ মেধাবী ক্রিকেটারে পরিপূর্ণ। কিন্তু আমাদের আরও ধারাবাহিকতা প্রয়োজন। আমি এমন একজন চাই যে, দলের জয়ের স্বার্থে খেলবে। যে খেলার মধ্যে নিজের স্বার্থে দেখবে না। এটার বাইরে কোনো স্বার্থ দেখবে না। যদি ৮০ রান হতে পারে, কেন ১০০ অথবা ১৪০ হবে না?’

পাকিস্তানের বি`পহ্মেপ্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ ১৪১ রান করে। সর্বোচ্চ ৪১ বলে ৪৩ রান করেন নাইম শেখ। যেটি মোতেও টি-টোয়েন্টি সুলভ ছিল না। তামিম করেন ৩৪ বলে ৩৯ রান। ক্রিজে সেট হয়ে আউট হয়ে যাওয়ায় দলের ভালো সংগ্রহ হয়নি। এ দুজনের ওপেনিং জুটি থেকে ১১ ওভারে আসে ৭১ রান। এখানেই মূলত পিছিয়ে যায়। এরপরে আর ব্যাটসম্যানরা রান করতে পারেননি।

দ্বিতীয় ম্যাচে আরও বাজে অবস্থা। এক তামিম ছাড়া কেউ রান করতে পারেননি। টপ অর্ডারে খেলা তিন ব্যাটসম্যানই আউট হয়েছেন দুই অঙ্কের ঘর ছোঁয়ার আগেই। তামিম ইকবাল ওপেনিংয়ে নেমে ১৮ ওভারের সময় আউট হয়েছেন। কিন্তু দলের জন্য ভালো সংগ্রহ এনে দিতে পারেননি। তার ব্যাট থেকে আসে ৫৩ বলে ৬৫ রান। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আফিফ হোসেন ২০ বলে ২১ রান করে।

ম্যাকেঞ্জি বলেন, ‘অনেক সময় ছেলেরা পরবর্তী ম্যাচে খেলতে পারলেই খুশি থাকে। ৪০ অথবা ৬০ রান করলেই হবে-এটা বাজে মানসকিতা। আমি এমন ছেলে চাই যারা বিশ্বের মধ্যে সেরা হওয়ার চেষ্টা করবে অথবা বাংলাদেশের সেরা ব্যাটসম্যান হওয়ার চেষ্টা করবে।’

আগামীকাল তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলতে নামবে বাংলাদেশ। এই ম্যাচের কাগজে কলমে কোনো গুরুত্ব না থাকলেও এটি টাইগারদের জন্য হয়ে দাঁড়িয়েছে ম'র্যাদার ল'ড়াই। এটাতে হারলেই যে ধবল ধোলাইয়ের লজ্জা নিয়ে ফিরতে হবে দেশে।