Wednesday , April 25 2018
Breaking News

এবার আমরা কাউকে হতাশ করতে চাই না: খাদ্যমন্ত্রী

রোববার খাদ্য অধিদপ্তরে আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক (আরসি ফুড), জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক (ডিসি ফুড) এবং মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম বলেন, বর্তমানে সরকারি গুদামগুলোতে চাল মজুদ আছে ১২ লাখ মেট্রিক টনের ওপরে। যা গত ২০ বছরের মধ্যে সর্বাধিক।

মন্ত্রী বলেন, এবার ১ লাখ মেট্রিক টন ধান এবং ৯ লাখ মেট্রিক টন চাল সংগ্রহ করা হবে। ধান প্রতি কেজি ২৬ টাকা দরে এবং চাল প্রতি কেজি ৩৮ টাকা দরে সংগ্রহ করা হবে।

তিনি বলেন, আশা করছি এবার প্রকৃতি বিরূপ হবে না।

কালো তালিকাভূক্ত মিলের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, গত আমন মৌসুমে কালো তালিকাভূক্ত মিলারদের কাছ থেকে চাল সংগ্রহ করা হয়নি। এবার আমরা কাউকে হতাশ করতে চাই না। তাদের কাছ থেকে এবার বোরো চাল সংগ্রহ করা হবে বলে নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

উপস্থিত সব কর্মকর্তাকে ধন্যবাদ জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচি এবং আমন সংগ্রহ অভিযান সফলভাবে শেষ হয়েছে। সংগৃহীত চালের মানও খুব ভালো। এজন্য আপনাদের সকলকে আমি ধন্যবাদ জানাই। তবে চলমান বোরো সংগ্রহে কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারী দুর্নীতি, অনিয়ম করলে প্রশাসনিক ব্যবস্থাসহ কঠিন শাস্তি দেওয়া হবে।

খাদ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বদরুল হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এবং এর মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তারা।