Thursday , April 26 2018
Breaking News

কলকাতায় সাকিবকে নিয়ে হাহাকার

গত ছয় আসর ধরে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেলে আসা সাকিব আল হাসানকে এই বছর ছেড়ে দিয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। আর নিলাম থেকে থেকে তাঁকে দলে ভিড়িয়েছে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। শনিবার সেই হায়দ্রাবাদের বিপক্ষেই খেলতে নেমেছিলো সাকিবের পুরনো দল কলকাতা।

আর এই ম্যাচে যেন অবহেলার প্রতিশোধ নিতেই মাঠে নেমেছিলেন সাকিব। তারই চাক্ষুষ প্রমাণ দেখা গিয়েছে তাঁর মাঠের পারফর্মেন্সে। অলরাউন্ডার নৈপুণ্যে হায়দ্রাবাদকে জিতিয়েছেন টাইগার এই অলরাউন্ডার। ইডেন গার্ডেন্সে বল হাতে ২১ রানে ২ উইকেট শিকার তো করেছেনই, পাশাপাশি ব্যাটিংয়ে নেমে খেলেছেন ২৭ রানের একটি কার্যকরী ইনিংস।

সাকিবের এই পারফর্মেন্সের পর স্বাভাবিকভাবেই হয়তো আক্ষেপে পুড়ছে কলকাতা। কেননা যে সাকিবকে হেলায় দল থেকে বাদ দিলো তারা সেই সাকিবই এবার তাদের হন্তারক হিসেবে আবির্ভূত হচ্ছেন! সাকিবকে ছেড়ে দেয়ার জন্য তাই নাইট রাইডার্সের সমালোচনা করেছে কলকাতার কয়েকটি জনপ্রিয় বাংলা পত্রিকা।

শুধু সাকিবকেই নয়, কলকাতা এবারের আসরে ছেড়ে দিয়েছে মনিষ পান্ডে এবং ইউসুফ পাঠানকেও। কলকাতার জনপ্রিয় বাংলা দৈনিক আনন্দবাজার তাই তাদের শিরোনামে লিখেছে- ‘কেকেআরের কাঁটা প্রাক্তন তিন নাইট’। এরপর ভেতরে তারা লিখেছে,

‘নাইটদের কাঁটা হয়ে বিঁধলেন তিন প্রাক্তন নাইট। সাকিব চার ওভারে ২১ রান দিয়ে দুই উইকেট নেওয়ার পাশাপাশি ব্যাট হাতেও ম্যাচ জেতানো জুটি গড়লেন উইলিয়ামসনের সঙ্গে। আন্দ্রে রাসেলকে স্কোয়ারকাটে পয়েন্টের ওপর দিয়ে হেলায় ছক্কা মারলেন সাকিব। শটটা যেন চাবুকের মতো সেই সব কেকেআর কর্তার ওপর আছড়ে পড়ল, যাঁরা তাঁকে ঢাকার প্রতিবেশী শহর থেকে চলে যেতে দিয়েছেন হায়দরাবাদে।’

আরেকটি জনপ্রিয় বাংলা দৈনিক ‘এবেলা’ তাদের শিরোনামে দিয়েছে এরূপ- ‘বৃষ্টিবিঘ্নিত লড়াইয়ে নাইট শিবিরে ধাক্কা দিলেন সেই সাকিবরা’। এছাড়াও ‘এই সময়’ পত্রিকা শিরোনামে দিয়েছে- ‘বাতিল বাঙালির নববর্ষের প্রতিশোধ’।

ভেতরে তারা লিখেছে এভাবে- ‘সুযোগ ছিল। কিন্তু নিলামে তাঁকে ব্রাত্যই করে রেখেছিল কেকেআর। সাকিব আল হাসান সেসব নিয়ে ভাবেননি। তবে নববর্ষের প্রাক্কালে পুরোনো টিমকে কাঁদিয়ে ছাড়ার পেছনে বড় ভূমিকা রেখে গেলেন তিনি।’

কলকাতার ইংরেজি দৈনিক দ্য টেলিগ্রাফ লিখেছে, ‘সাকিব শেষ পর্যন্ত হয়তো খেলে যেতে পারেনি, কিন্তু তাঁর পারফরম্যান্স যা ছিল, প্রথমে বল হাতে তার পর ব্যাট হাতে খুবই প্রয়োজনীয় এক ইনিংস, এটা নিশ্চিত রবিবার বাংলা নববর্ষের প্রথম দিনটা দারুণভাবেই তিনি কাটাতে পারছেন।’