Thursday , April 26 2018
Breaking News

ভিডিও দুটি দেখুন ও শেয়ার করুন। সারা দেশে ছড়িয়ে দিন

দয়া করে ভিডিও দুটি দেখুন ও শেয়ার করুন। সারা দেশে ছড়িয়ে দিন। লোকটির বাড়ি ৩ নং রুদাঘরা ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের মধুগ্রামের। ঘটনা স্থাল: ফুলতলার, গাঁড়াখুলা গ্রামে। বিবরণ: লোকটির মাথায় একটু সমস্যা থাকায় সে ঐ অঞ্চলে হাটতে হাটতে চলে যায়। এর পর একটি গরু নিয়ে টানা টানি করতে থাকে। এটি দেখে ঐ স্থানের লোক জন তাকে চোর মনে করে মারতে মারতে একবারে মেরে ফেলেছে,,,, এ যেন মায়ানমারের নির্যাতন,,,!! এ যেন বর্বর নির্যাতন! এ যেন,,,,,,,!!

আমার প্রশ্ন চুরি করার ফলেই কি বৃদ্ধ লোকটিকে হত্যা করা হয়েছে নাকি এর পেছনে অন্যকোন কারন ????

বলা হচ্ছে সন্দেহভাজন গরু চুরি করার দায়ে এই বৃদ্ধকে এইভাবে পেটানো হয়েছে। ঘটনাটি ঘটে খুলনা জেলার ফুলতলা, গাড়াখোলা গ্রামে।

মুসলিম বৃদ্ধ লোকটি মূলত মারা যায় একটি হিন্দু পরিবারের হাতে। প্রথম ভিডিওটিতে দেখতে পাচ্ছেন ভিডিওর ভিতরের মহিলাদের হাতে শাখা পরা (নিচে ছবিতে দেওয়া হল)। মুসলিম বৃদ্ধ লোকটিকে যখন পেটানো হচ্ছিল তখন মুসলিম বৃদ্ধ লোকটি কয়েকবার একটি হিন্দু মহিলা ও হিন্দু পুরুষের পায়ে পড়ে মাফ চাচ্ছিল। কিন্তু তার কথা কেউ না শুনে সবাই তাকে পাগলের মত মারতে থাকলে। কেউ কেউ বাচানোরও চেষ্টা করছিল।

দ্বিতীয় ভিডিওটিতে পাশে থেকে একটি হিন্দু লোক বলছিল, ”কোন নেতা-পুলিশ কে ফোন যাতে না দেওয়া হয়।” মানে তাদের উদ্দেশ্যই ছিল এই বৃদ্ধ মুসলিম লোকটিকে একবারে মেরে ফেলা তাতে এরা সফলও হয়েছে।

এই ঘটনাটি দেখে আমার ভারতের মুসলমানদের হত্যা করার ঘটনাগুলো মনে পড়ে গেল। ভারতে ঠিক একিভাবে মুসলমানদের হত্যা করা হয়।মুসলমানদের হত্যা করতে প্রথমে তারা একটা সন্দেহভাজন ঘটনা তৈরী করে যেমন গো মাতা রক্ষা, লাভ জিহাদ, চুরি করা ইত্যাদি ইত্যাদি।

তারপর তারা কোন প্রকার নেতা বা প্রশাসনকে জানায় না, কারন তাদের উদ্দেশ্য মুসলমানদের হত্যা করা। আমার মনে হয় গাড়াখোলা গ্রামের ঘটনাটি ঠিক একি কারন হতে পারে গো মাতা রক্ষা করতে বৃদ্ধ মুসলিমকে হত্যা। যদিও লোকটি গরু চুরি করতে আসে নি।

লিখেছেন ,
Md Alamgir Hosen

***এই ওয়েবসাইটে যাবতীয় লেখার বিসয়বস্তু,মতামত কিংবা মন্তব্য লেখকের একান্তই নিজস্ব ।খবর২৪ -এর সম্পাদকীয় নীতি/মতের সঙ্গে লেখকের মতামতের অমিল থাকতেই পারে।**সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে মিল আছে এমন সিধান্তএ আসার কোন যক্তিকতা নেই । তাই লেখকের লেখার বিসয়বস্তু,মতামত কিংবা মন্তব্য,
এখানে প্রকাশিত লেখার জন্য খবর২৪’ কর্তৃপক্ষ এর যথার্থতা নিয়ে আইনগত বা অন্য কোনও ধরনের কোনও দায় বহন করে না