Monday , April 23 2018

ব্লু-হোয়েলে’র পর এবার নতুন আতংকের নাম ‘কনডম স্নোর্টিং চ্যালেঞ্জ’! কী সেই চ্যালেঞ্জ?

এক সময়ের আতংকের নাম ছিল ব্লু-হোয়েল গেম। তবে এর রেশ কাটতে না কাটতেই আরেক ভয়ঙ্কর গেম চলে এসেছে যার নাম ‘কনডম স্নোর্টিং চ্যালেঞ্জ’। বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে এটা নিয়ে চলছে মাতামাতি।
‘কনডম স্নোর্টিং চ্যালেঞ্জ’। কী সেই চ্যালেঞ্জ? ব্যাপারটা একেবারেই ভয়ঙ্কর। নাক দিয়ে কনডম ঢুকিয়ে মুখ দিয়ে বের করতে হচ্ছে! তার পর সেই ভিডিও পোস্ট করা হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে।

সেখানে লাইক, শেয়ার পাওয়ার প্রবণতা থেকেই এ ধরনের কার্যকলাপে মত্ত হচ্ছে নতুন প্রজন্ম, এমনটাই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

দ্য ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, এই চ্যালেঞ্জ কিন্তু খুব নতুন কিছু নয়। ২০০৭ সালে খেলাটি শুরু হয়। পরবর্তী সময়ে ২০১৩ সালে একটি ভিডিওতে ব্যাপারটি ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল। এবার আবারো ফিরে এসেছে সেই মারাত্মক খেলা।

কতটা বিপজ্জনক এই খেলার প্রবণতা? জন হপকিন্স ব্লুমবার্গ স্কুল অব পাবলিক হেলথের এক সহযোগী অধ্যাপক জানান, কনডম খুব সহজেই নাক অথবা গলাতে আটকে যেতে পারে। ফলে শ্বাসরোধ হয়ে মৃত্যু হতে পারে।

condom-sloting
সম্প্রতি, এক নারীর ঘটনা সামনে এসেছে; যিনি ওই চ্যালেঞ্জ নিতে গিয়ে কনডম গিলে ফেলেন। ফুসফুসে কনডম আটকে যাওয়ার ফলে তার ফুসফুসের উপরের অংশের স্বয়ংক্রিয়তা বন্ধ হয়ে যায় এবং তিনি নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হন।