Thursday , April 26 2018
Breaking News

আর্থিক ক্ষতি কাটতে নিষিদ্ধ ওয়ার্নারের নতুন পরিকল্পনা

বল টেম্পারিংয়ের বিতর্ক মিটতে না মিটতেই নতুন এক বিতর্কে ডেভিড ওয়ার্নার। বলা হচ্ছে বল বিতর্ক নিয়ে এখনো পুরোপুরি মুখ না খোলা ওয়ার্নার মোটা অঙ্কের অর্থের বিনিময়ে কোনো সংবাদপত্র বা টেলিভিশন চ্যানেলকে সাক্ষাতকার দেবেন।

বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারির মূল হোতা ধরা হচ্ছে ওয়ার্নারকেই। কেপটাউন থেকে দেশে ফিরে সংবাদ সম্মেলনে কেঁদে ফেলেছিলেন তিনি। কিন্তু দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা চাইলেও নিষিদ্ধ অজি সাবেক সহ-অধিনায়ক সংবাদ সম্মেলনে সব প্রশ্নের উত্তর দেননি।

কেন এমন কাজে জড়ালেন? সংবাদ সম্মেলনে বারবার এই প্রশ্ন করা হলে ওয়ার্নার বলেন, সব দোষ তার। কিন্তু কেন এমনটা করলেন তার কোনো উত্তর দেননি। সেটা নিয়েই এখন অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটে আলোচনা তুঙ্গে।

একটি রেডিও চ্যানেলে সাক্ষাতকার দিতে গিয়ে অস্ট্রেলিয়ান সাংবাদিক ডেভিড পেনবার্থি বলেছেন, ‘দেশে ফিরে সংবাদ সম্মেলনে ওয়ার্নারের স্ত্রী’র সঙ্গে ছিলেন রক্সি জ্যাকেনকো নামের একজন। সে একজন পিআর। ওয়ার্নার খোলাখুলি কিছু না বলার এটা একটা কারণ হতে পারে।’

সিনিয়র ওই সাংবাদিক বলেন, ‘বল টেম্পারিংয়ে জড়িয়ে ৬০ লাখ ডলার হাতছাড়া হয়েছে ওয়ার্নারের। সে অন্তত ১০ লাখ ডলার ঘাটতি মেটাতে পারে, যদি কোনো সংবাদপত্র বা টেলিভিশন চ্যানেলকে খোলামেলা সাক্ষাতকার দেয়। আমার তো মনে হয়, এটাই একমাত্র কারণ ওয়ার্নারের মুখ বন্ধ রাখার।’

অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ ও ওয়ার্নারকে এক বছরের জন্য সবধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। এ দুজনের বুদ্ধিতে বল টেম্পারিংয়ের কাজটা যিনি সম্পন্ন করেন, সেই ক্যামেরন বেনক্রফট নিষিদ্ধ হয়েছেন ৯ মাসের জন্য।

স্মিথ-বেনক্রফট শাস্তি মেনে নিয়ে একদিন আগেই জানিয়েছেন, সিএ’র শাস্তির বিরুদ্ধে আপিল করবেন না। বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় পাঁচটার মধ্য তিন ক্রিকেটারের সিদ্ধান্ত জানানোর কথা, তারা আপিল করবে কি না। তবে এদিন সকালেই ওয়ার্নার শাস্তি মেনে নিয়ে আপিল করবেন না বলে জানিয়ে দেন।